কোম্পানিগঞ্জে গুমের ৪ দিন পর যুবকের লাশ উদ্ধার

জুন ১৪, ২০১৬ ১১:০৬:পূর্বাহ্ণ

lash
নিজস্ব প্রতিবেদক
নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে নিখোঁজের ৪ দিন পর নুর নবী (৩৫) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার সকালে উপজেলার চরফকিরা ইউনিয়নের চরকচ্ছপিয়া গ্রামের জাইল্যার খাল থেকে ভাসমান অবস্থায় মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। লাশের ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে আবু সুফিয়ান নামের এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। নিহত নুর নবী চরকচ্ছপিয়া গ্রামের মাবল হকের ছেলে। আটককৃত আবু সুফিয়ানও একই গ্রামের মৃত বজলের রহমানের ছেলে।
কোম্পানীগঞ্জ থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সকালে উত্তরচকচ্ছপিয়া গ্রামের জাইল্যার খালে হাত বাঁধা অবস্থায় একটি মরদেহ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা থানায় খবর দেয়। দ্রুত পুলিশ গিয়ে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে। উপস্থিত স্থানীয়রা এটি নিখোঁজ নুর নবীর মরদেহ বলে নিশ্চিত করে।
স্থানীয় একাধিক সূত্র জানায়, গত বৃহস্পতিবার রাতে নুর নবী নিখোঁজ হয়। তাকে পরিবারের লোকজন খোঁজাখুজি করেও কোনো সন্ধান পায়নি। সোমবার সকালে তার মরদেহ জাইল্যার খালে ভাসতে থাকে।
সূত্র জানায়, নুর নবী প্রতিদিন রাতে বাড়ির পার্শ্বের একটি মাছের খামারের আটককৃত পাহারাদারসহ কয়েকজন মিলে জুয়া খেলত। হয়তো জুয়া সংক্রান্ত বিষয়ের জের ধরে তাকে কেউ হত্যা করে হাত বেঁধে খালের কাদামাটিতে পুঁতে রাখে। টানা বৃষ্টির কারণে মাটি সরে গেলে মরদেহটি ভেসে ওঠে।
কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ ফজলে রাব্বি বলেন, হাত বাঁধা অবস্থায় নুর নবীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশের সুরতহাল রিপোর্ট নিহতের মাথায় ও মুখে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। সোমবার দুপুরে নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছে বলেও জানান তিনি।

Related Post