কোম্পানীগঞ্জের ম্যাজিস্ট্রেটসহ ৪ জনকে পিটিয়ে জখম

জুলাই ১৬, ২০১৫ ১১:০৭:অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেক
 অবৈধ স্থাপনা নির্মাণে বাধা দেয়ায় নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চরফকিরা ইউনিয়নে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)সহ চারজনকে পিটিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা।
বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে ইউপির চাপরাশিরহাট বাজারে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হচ্ছেন- কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আশাফুর রহমান, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো. ছালেহ উদ্দিন, এমএলএসএস মো. মোস্তফা, নির্বাহী কর্মকর্তার গাড়িচালক মমিন উল্যাহ। আহতদের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মোবাইলে যোগাযোগ করলে তার বরাত দিয়ে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো. ছালেহ উদ্দিন জানান, বৃহস্পতিবার চরফকিরা ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে বিজিএফ এর চাল বিতরণ কর্মসূচি ছিল। দুপুর ১২টার দিকে তারা চাল বিতরণের স্থানে যাওয়ার সময় দেখেন চাপরাশিরহাট পূর্ব বাজারে সরকারি খাল দখল করে তার উপর স্থানীয় আমেরিকা প্রবাসী হানিফ সুকানী একটি ঘর নির্মাণ করছে। নির্বাহী কর্মকর্তা আশাফুর রহমান গাড়ী থেকে নেমে ঘরটির দিকে যাওয়ার সময় হানিফ সুকানীর ভাই ভাসানী, জয়নাল, সাইফুল, সাহাব উদ্দিনসহ ২০/২৫ জন নির্বাহী কর্মকর্তার উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে তাকে পিটিয়ে জখম করে। এসময় নির্বাহী কর্মকর্তাকে উদ্ধার করতে এগিয়ে গেলে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক ছালেহ উদ্দিন, এমএলএসএস মোস্তফা ও গাড়িচালক মমিনকেও পিটিয়ে জখম করে তারা।
পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আহতদের মধ্যে নির্বাহী কর্মকর্তা আশাফুর রহমানের নাক ও কপাল কেটে রক্তক্ষরণ হয়েছে।
তিনি আরো জানান, এর আগে ওই স্থানে ঘর নির্মাণ না করার জন্য তাদেরকে উপজেলা প্রশাসন থেকে একটি নোটিশ দেয়া হয়েছিল। এ বিষয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে একটি উচ্ছেদ নথিও প্রেরণ করা হয়েছিল। এরপরও আইন অমান্য করে অবৈধভাবে সরকারি জায়গা দখল করে ঘর নির্মাণ করছে তারা।
কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজেদুর রহমান সাজিদ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ঘটনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

Related Post