কোম্পানীগঞ্জ সমিতির নির্বাচন ২৫ সেপ্টেম্বর : দুই প্যানেলের প্রচারণা শুরু

আগস্ট ০২, ২০১৬ ১২:০৮:অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: কোম্পানীগঞ্জ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশানের কার্যনির্বাহী কমিটির ২০১৭-১৯ নির্বাচন আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৬ অনুষ্ঠিত হবে। ইতিমধ্যে নির্বাচন কমিশন তফসিল ঘোষণা করেছে। প্রার্থীদের মধ্যেও প্রচারণা শুরু হয়ে গেছে। এখনো পর্যন্ত দুইটি প্যনেলের নাম শুনাচ্ছে। একটি আরজু-করিম, অন্যটি মালেক-সবুজ। মোট সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ মোট ১৫টি পদের জন্য দুইটি প্যানেলে বিভক্ত হয়ে নির্বাচন করবে।
দুই প্যানেলের প্রার্থীরা প্রতিদিন রাত জেগে নিজেদের মধ্যে মিটিং করছেন। সিনিয়রদের কাছে ছুটে যাচ্ছেন। এলাকা ভিত্তিক ভোটারদের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছেন। অন্যদিকে নির্বাচনকে কেন্দ্রে করে প্রতি বছরের মতো এবারো কোম্পানীগঞ্জ প্রবাসীরা বিভক্ত হয়ে পড়েছে। এক গ্রুপ অন্য গ্রুপের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ করছে।

মালেক-সবুজ প্যানেল ২৭ জুলাই ব্রুকলীনের নোয়াখালী সমিতি অফিসে পরিচিতি সভা করেছে। এ প্যানেলকে বর্তমান কমিটির সভাপতি ভিপি বাবুল ও সাধারণ সম্পাদক লতিফুর রহমান লিটনসহ কোম্পানীগঞ্জ সমিতির সাবেক কয়েকজন নেতা সমর্থন করেছে। সভায় উপস্থিত সাবেক বর্তমান নেতারা মিলে মালেক-সবুজ প্যানেলকে বিজয়ী করতে দৃড় প্রতিজ্ঞা ব্যক্ত করেছেন।
মালেক-সবুজ প্যানেলের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী মোশাররফ হোসেন সবুজ বলেন, আমাদের প্যানেল প্রার্থী চুড়ান্ত। সময় হলে আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে নাম ঘোষণা করবো। বিজয়ের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করে সবুজ বলেন, আমাদের প্যানেলকে সমিতির বর্তমান কমিটি ও সাবেকরা অধিকাংশ সমর্থন দিয়েছেন। এছাড়াও সমিতিতে দীর্ঘদিনের কাজের অভিজ্ঞতা থেকে আমরা জয়ের ব্যপারে আশাবাদী।

আরজু-করিম প্যানেলও প্রচারণা শুরু করে দিয়েছে। গত ৩০ জুলাই আরজু হাজারীর নিজ বাসায় প্যানেল প্রার্থী ও তাদের নির্বাচনী কর্মকর্তাদের নিয়ে বৈঠক করেছেন। এ প্যানেলকেও সমর্থন করেছেন কোম্পানীগঞ্জ সমিতির সাবেক কয়েকজন কর্মকর্তা এবং বর্তমান কমিটির সহসভাপতি নুরুল হুদা হারুন ও সহ সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন মিল্লাত। এছাড়াও বেশ কয়েকজন নতুন মুখ দেখাগেছে।
আরজু-করিম প্যানেলের সভাপতি প্রার্থী আরজু হাজারী বলেন, আমাদের প্যানেল প্রার্থী প্রস্তুত। বর্তমান কমিটির কয়েকজন আমাদের সঙ্গে নির্বাচনে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। আমরা কৌশলগত কারণে প্যানেল প্রার্থী চুড়ান্ত করেনি। যথা সময়ে আনুষ্ঠানিকভাবে প্যানেল সদস্যদের পরিচয় করিয়ে দিবো।

সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা আশা করছেন, এবারের নির্বাচন হাড্ডা হাড্ডি লড়াই হবে। দুই প্যানেলে শীর্ষ দুই পদে নতুন মুখ রয়েছেন। মালেক-সবুজ পরিষদের সভাপতি প্রার্থী আব্দুল মালেক এবং আরজু-করিম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী আব্দুল করিম নতুন মুখ।
সভাপতি প্রার্থী আরজু হাজারী গত ২০১৫-১৬ নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন করে পরাজিত হয়েছেন। তবে সমিতিতে তার ভাল পরিচিতি রয়েছে। এবারে নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার জন্য তিনি কয়েকমাস আগ থেকেই কাজ করে যাচ্ছেন।
সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী মোশাররফ হোসেন সবুজ পর পর দুই বার নির্বাচিত কোষাধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি বর্তমান কমিটির শীর্ষ ব্যক্তিদের আস্থাবাজন হিসেবে পরিচিত। সাধারণ সদস্যদের মাঝেও তার পরিচিতি রয়েছে।

নিবার্চন কমিশন তফসিল:

কোম্পানীগঞ্জ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশানের ২০১৭-১৯ সালের কার্যনির্বাহী কমিটি গঠনের নিবার্চনী তফসিল ঘোষণা করেছে নিবার্চন কমিশন। গত ২৪ জুলাই অনুষ্ঠিত সাধারণ সভায় এ নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করা হয় ।
গঠনতন্ত্রের ধারা ১৪ অনুসারে ১৫ (পনের) সদস্য বিশিষ্ট নির্বাহী কমিটির নির্বাচন আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৬ অনুষ্ঠিত হবে।
সম্ভাব্য প্রার্থীগণ আগামী ১৩ ও ১৪ আগষ্ট মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে এবং ২১ আগষ্ট মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারবেন। ২৩ আগষ্ট মনোনয়নপত্র বাচাই শেষে প্রাথমিক প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হবে। প্রার্থীতা প্রত্যাহারের জন্য ২৭ আগষ্ট ধার্য্য করা হয়েছে। ২৮ আগষ্ট রাত ৯ টায় চুড়ান্ত প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করা হবে।
বর্তমান নির্বাহী কমিটি কর্তৃক ‍অনুমোদিত ভোটার তালিকা-২০১৬ অনুযায়ী ভোটারগণ নির্বাচনে প্রার্থী হতে ও ভোট প্রদান করতে পারবেন। ভোটার তালিকা নিয়ে কোন সংশোধন বা আপত্তি থাকলে সভাপতি বা সাধারণ সম্পাদক বরাবর যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।
নির্বাচনে প্রার্থীকে স্থায়ীভাবে কোম্পানীগঞ্জের অধিবাসী হতে হবে। সভাপতি, সহ-সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক এবং কোষাধ্যক্ষ পদে প্রার্থীতার ক্ষেত্রে সমিতিতে সদস্যপদের মেয়াদ ৩ বছর এবং অন্যান্য পদে প্রার্থীতার ক্ষেত্রে সমিতিতে সদস্যপদের মেয়াদ ১ বছর হতে হবে। সভাপতি, সহ-সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, এবং কোষাধ্যক্ষ পদে- প্রার্থীতার ক্ষেত্রে আমেরিকার বৈধ রেসিডেন্স (ইউ এস পাসপোর্ট বা গ্রীন কার্ডধারী) হতে হবে। দায়িত্বরত ট্রাষ্টি বোর্ড ও নির্বাচন কমিশন এর কোন সদস্য প্রার্থী হতে পারবেননা। কোন উপদেষ্টা নির্বাচনে প্রার্থী হতে চাইলে মনোনয়নপত্র দাখিলের পূর্বে উপদেষ্টা পদ থেকে পদত্যাগ করতে হবে। যুক্তরাষ্ট্রের আইনে গুরুতর অপরাধে (অর্থ প্রতারণা, খুন, নারী ও শিশু নির্যাতন, ড্রাগ সংক্রান্ত) সাজা প্রাপ্ত হলে কমিটিতে প্রার্থী হতে পারবেননা। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে পরপর অথবা একই পদে একাধারে দুই বার নির্বাচিত হলে তৃতীয়বার কমিটি নির্বাচনে প্রার্থী হতে পারবেননা।সভাপতি বা সাধারণ সম্পাদক পদের যে কোনটিতে দুই বার নির্বাচিত হয়ে থাকলে ঐ পদে প্রার্থী হতে পারবেননা। কমিশন কর্তৃক প্রণীত নিয়মাবলী, আচরণবিধি ও ফলাফল সহ নির্বাচন বিষয়ে কমিশনের সব সিদ্ধান্ত সকল প্রার্থীকে মেনে চলতে হবে।
প্রার্থী হতে ইচ্ছুক ভোটার নিজে বা প্রতিনিধির মাধ্যমে নগদ ১০০ (এক শত) ডলার ফি (অফেরতযোগ্য) নগদ পরিশোধ করে মনোনয়নপত্র (প্যাকেজ) সংগ্রহ করতে পারবেন।
নির্বাচন- ২০১৬ সংক্রান্ত বিস্তারিত নিয়মাবলী ও আচরণবিধি মনোনয়নপত্র সংগ্রহের সময় সরবরাহ করা হবে।
একটি সুষ্ঠূ, সুন্দর, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে কার্যনির্বাহী কমিটি ২০১৭-২০১৯ গঠনের জন্য এসোসিয়েশানের সকল সদস্য-সদস্যা, ভোটারবৃন্দ ও শুভাকাঙ্খী মহোদয়গণের আন্তরিক সহযোগীতা ও অংশগ্রহণ প্রত্যাশা করছি।
বিস্তারিত জানার জন্য প্রধান নির্বাচন কমিশনার আশীষ রঞ্জন ভৌমিক ৬৪৬-৪৬২-৮৪৯৮, নির্বাচন কমিশনার ডাঃ মোহাম্মদ নুরআলম ছিদ্দিক (মুন্না) ৩৪৭-৪২৯-১৩৭১, নির্বাচন কমিশনার শেখ হুমায়ুন কবির (ছুট্টি) ৯১৭-৫৮৬-০৫৬৬, মোহসিনুর রহমান খাঁন (সবুজ) ৭১৮-৪৯৬-৮৪৫৭ এবং নির্বাচন কমিশনার জয়নাল আবেদীন মাহমুদ ৯১৭-৯৪৫-০৭৯৭ এর সাথে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

Related Post