নাদিয়া বাচঁতে চায়, স্বপ্ন দেখতে চায়

জুলাই ২৪, ২০১৫ ০৮:০৭:অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

অষ্টম শ্রেণীর ফুটফুটে মেয়ে নুসরাত জাহান নাদিয়া বোনমেরু কাইপোলোছিয়ায় আক্রান্ত হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বেডে মৃত্যু যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে। নাদিয়া বাচঁতে চায়। বাঁচার স্বপ্ন দেখতে চায়। তার মা নাসিমা আক্তার মেয়েকে বাঁচানোর আকুল আবেদন জানিয়েছেন।

রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সম্প্রসারিত হলে শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ আবেদন জানান।  নাসিমা আক্তার বলেন, ‘নোয়াখালী জেলার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার মানিকপুর গ্রামের মানিকপুর হাইস্কুলের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী নাদিয়াই তার একমাত্র কন্যা। মানিকপুরেই তাদের বসবাস।’

তিনি বলেন, ২০১৩ সালের ৫ এপ্রিল এক বিয়ের অনুষ্ঠান শেষে বাড়ি ফেরার পথে সদা চঞ্চল ও মেধাবী ছাত্রী নাদিয়া হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ে। চিকিৎসকের বিভিন্ন পরীক্ষা নিরিক্ষায় জানা যায় নাদিয়ার রক্তে হিমোগ্রোবিন শূন্যের কোটায়। চিকিৎসকের পরামর্শে সিএমএইচ এ বিভিন্ন পরীক্ষার পর জানা যায় নাদিয়া বোনমেরু ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছে।’

সেই থেকে চলছে নাদিয়ার চিকিৎসা। কিন্তু দিনে দিনে অবস্থার অবনতি হওয়ায় নাদিয়াকে ভর্তি করা হয়েছে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। এই হাসপাতালের ৮০১ নম্বর ওয়ার্ডের ১৭ নম্বর বেডে শুয়ে নাদিয়া প্রতিনিয়ত যন্ত্রণায় ছটফট করছে। এ হাসপাতালের চিকিৎসায় অবস্থার অবনতি ছাড়া কিছুই হচ্ছে না বলে জানালেন নাদিয়ার মা।

নাসিমা আক্তার বলেন, ‘ডাক্তাররা জানিয়েছেন এই রোগ নিরাময়ের জন্য উন্নত চিকিৎসা দরকার। যা অত্যন্ত ব্যয়বহুল এবং এ দেশে সম্ভব নয়। তাই নাদিয়াকে ভারত বা সিঙ্গাপুরে নিয়ে চিকিৎসা করাতে হবে। আর এজন্য দরকার ৫০ থেকে ৬০ লাখ টাকা। যা তার মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসী স্বামী ও পরিবারের পক্ষ থেকে যোগাড় করা কোনোভাবেই সম্ভব হচ্ছে না।’

তিনি আরও বলেন, ‘মেয়ের চিকিৎসা চালাতে গিয়ে ইতোমধ্যে তারা কপর্দকহীন হয়ে পড়েছেন। তাই মেয়েকে বাঁচাতে আপনাদের কাছে হাত পেতেছি।’

কান্নাজড়িত কণ্ঠে তিনি বলেন, ‘আপনারা আমার মেয়েটিকে বাঁচানোর ব্যবস্থা করে দিন।’

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে নাদিয়ার বাবা জহির উদ্দিন মন্ডল, ঢাকাস্থ নোয়াখালী জেলা সমিতির সভাপতি মো. সাহাবুদ্দিন, দাগনভূইয়া যুব ফোরামের সভাপতি মঞ্জুরুল আলম টিপু, নোয়াখালী প্রতিদিনের সম্পাদক ও প্রকাশক মো. রফিকুল আনোয়ার, নোয়াখালী প্রতিদিনের পাঠক ফোরামের সভাপতি ফারুক হোসেন ও খন্দকার রায়হান তারেক।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, নাদিয়ার চিকিৎসার জন্য ইসলামী ব্যাংকের নোয়াখালী জেলার কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাট শাখায় নাদিয়ার মা নাসিমা আক্তারের নামে একটি একাউন্ট খোলা (নম্বর-৩৮৩৩৩) খোলা হয়েছে। এ ছাড়া নদিয়ার মা নাসিমা আক্তারের একটি সেল ফোনে (০১৮২৯৩০৬১০৬) বিকাশ করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে ওই এ্যাকাউন্টে সাধ্যমত সাহায্য দেওয়ার জন্য হৃদয়বান সকলের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, নাদিয়ার চিকিৎসা সহায়তার জন্য নোয়াখালী প্রতিদিন দীর্ঘদিন থেকে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। পত্রিকাটির সম্পাদক ও প্রকাশক মো. রফিকুল আনোয়ার নিয়মিত নাদিয়ার চিকিৎসা তহবিল সংগ্রহে তদারকি করছেন। অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনটিও নোয়াখালী প্রতিদিন থেকে আয়োজন করা হয়।

Related Post