নোয়াখালীতে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ

জুন ২৭, ২০১৬ ০২:০৬:অপরাহ্ণ

নিজস্‌ প্রতিবেদক:
সালিশী বৈঠককে কেন্দ্র করে নোয়াখালী সদরের দাদপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছে। এসময় ৫ টি দোকান ভাঙচুর করা হয়।

শনিবার দিবাগতরাত সাড়ে ১১টা থেকে রাত ৩টা পর্যন্ত খলিফারহাট বাজারে দফায় দফায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আহতরা হচ্ছেন- দাদপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোহাম্মদ জহির তার দলের কর্মী বাবর, রাকিব। বাকীদের তাৎক্ষনিক নাম পাওয়া যায়নি।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাতে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ জহির খলিফারহাট বাজারে বসে একটি সালিশী বৈঠক করছিলেন। এসময় ২৫/৩০ জনের একদল দূর্বৃত্ত বাজারে এসে জহিরকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি ছুঁড়তে থাকলে জহির উদ্দিন দৌঁড়ে পালিয়ে যায়।

৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোহাম্মদ জহির জানান, সদ্য শেষ হওয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তিনিসহ তার দলের লোকজন আওয়ামী লীগ মনোনিত চেয়ারম্যান প্রার্থী দেলোয়ার হোসেনের পক্ষে ভোট করেন। নির্বাচনে বিপুল ভোটে দেলোয়ার হোসেন জয়ী হন। এ পরাজয়ের জের ধরে রাতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (স্বতন্ত্র) মিজানুর রহমান শিপন বহিরাগত সন্ত্রাসী দিয়ে এ হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে।

সুধারাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন জানান, দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের খবর পেয়ে রাতে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে দুই রাউন্ড ফাঁকা গুলি করা হয়েছে।

Related Post