নোয়াখালী সোসাইটি থেকে সভাপতি রবের পদত্যাগ, মানিক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি

আগস্ট ২০, ২০১৮ ০১:০৮:পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: বৃহত্তর নোয়াখালী সোসাইটি ইউএসএ ইনক’র সভাপতি মোহাম্মাদ রব মিয়া পদত্যাগ করেছেন। গত ১৭ আগস্ট শুক্রবার সোসাইটির নিজস্ব কার্যালয়ে কার্যকরী পরিষদের সভায় সভাপতি তার পদত্যাগ পেশ করেন। পরিষদ রব মিয়ার পদত্যাগ পত্র গ্রহণ করে সিনিয়ির সহভাপতি নাজমুল হাসান মানিককে ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব দেন।

রব মিয়ার সভাপতিত্বে এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মেদ ইউছুপ জসিমের পরিচালনায় কার্যকরী পরিষদ সভায় উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সহসভাপতি নাজমুল হাসান মানিক, কোষাধক্ষ্য মহি উদ্দিন, সহ কোষাধক্ষ্য জামাল উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আরীফ হোসাইন, প্রচার সম্পাদক আইনুল ইসলাম সোহেল, ক্রীড়া সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, অফিস সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া মিরন, সদস্য মোশরফ হোসাইন, সালেহ আহমেদ চৌধুরী ও মোহাম্মেদ ইউছুপ।এছাড়াও সাধারণ সম্পাদক জাহিদ মিন্টু সৌদি আরব থেকে ফোনে যোগ দেন। উল্লেখ্য, জাহিদ মিন্টু পবিত্র হজ্ব পালনের জন্য সৌদি আরব রয়েছেন।

কার্যকরী পরিষদ সভাপতির পদত্যাগপত্র অনুমোদন দেয়ার পর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নাজমুল হাসান মানিককে দায়িত্ব বুঝে দিয়ে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন রব মিয়া।এরআগে রব মিয়াকে ফুল দিয়ে উপদেষ্টা শাহ নাছের স্বপন বিদায় জানান।

এ সময় ট্রাস্টি ও উপদেষ্টা পরিষদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রমেশচন্দ্র দেবনাথ, গোলাম সরোয়ার, রফিক ভুইঁয়া,এস এম আমানত, শাহজান কবির ও মোহাম্মাদ মোস্তাক হোসাইন। রব মিয়ার বিদায়কালে সভায় আবেগঘন পরিবেশ সৃষ্টি হয়।এ সময় অনেকে অশ্রু সিক্ত হয়ে পড়েন।

পরিষদ সূত্রে জানাগেছে, আসন্ন বাংলাদেশ সোসাইটির নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে নোয়াখালী সোসাইটির সভাপতি থেকে পদত্যাগ করেছেন। বাংলাদেশ সোসাইটির সভাপতি দায়িত্ব পালনকালে অন্য কোন সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকতে পারবেননা বলে সংবিধানে উল্লেখ রয়েছে। তবে নির্বাচনে প্রার্থীতার বিষয়টি সংবিধানে স্পস্ট নই বলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা মনে করেন। তারপরও ঝামেলা এড়াতে রব মিয়া নোয়াখালী সোসাইটির পদ থেকে সরে দাড়িয়েছেন বলে জানাগেছে।

মোহাম্মাদ রব মিয়া বলেন, বৃহত্তর নোয়াখালী সোসাইটির প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে আমি ছিলাম। সোসাইটির সদস্যরা পর পর দু’বার সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালনে সুযোগ দিয়েছেন। আমি কার্যকরী পরিষদকে নিয়ে চেষ্টা করেছি নোয়াখালী সোসাইটিকে ভঙ্গুর অবস্থা থেকে সম্মানজনক অবস্থায় তুলে এনেছি। সততার মাধ্যমে লোন মুক্ত করে সোসাইটির একাউন্টে প্রায় ৩ লাখ ডলার সঞ্চয় করেছি। একইসঙ্গে ৪শ স্থায়ী সদস্যসহ দুই হাজারের অধিক সদস্য সংগ্রহ করেছি। ভবিষতের কথা বিবেচনা করে সদস্যদের জন্য ৪শ কবর ক্রয় করেছি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশী কমিউনিটি নেতা ও নোয়াখালীবাসী অনুরোধে বাংলাদেশ সোসাইটির আসন্ন নির্বাচনে সভাপতি পদে নির্বাচন করার জন্য রাজি হয়েছি। আপনাদের সবার সহযোগীতা নিয়ে বাংলাদেশ সোসাইটিতে নির্বাচিত হতে পারলেও সততার মাধ্যমে একটি মডেল সংগঠন হিসেবে দাড় করাতে পারবো ইনশাল্লাহ।

Related Post