ফেনীতে দলীয় কোন্দলে যুবলীগ নেতা খুন

জুন ২০, ২০১৫ ১২:০৬:পূর্বাহ্ণ

ফেনীতে যুবলীগ নেতা গোলাম রসুল মানিক (২৮) কে আভ্যন্তরীন কোন্দল নিয়ে হত্যা করেছে নিজ দলের কর্মীরা। সদর উপজেলার বালিগাঁও ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে।
 
বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪ টার দিকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এ  যুবলীগ নেতা নিজাম হাজারী সমর্থিত বলে জানাগেছে।
 
পুলিশ ও দলীয় সূত্রে জানা যায়, বালিগাঁও ইউনিয়নে স্থানীয় যুবলীগের কিছু নেতাকর্মীর মধ্যে এলাকায় আভ্যন্তরীন কোন্দল ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বিরোধ দেখা দেয়। ওই বিরোধের জের ধরে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে গোলাম রসুল মানিক কুরুচিয়া গ্রামের একটি চায়ের দোকানে অবস্থান করছিল। এসময় পাশ্ববর্তী চর হকদি গ্রামের যুবলীগকর্মী ও স্থানীয় বাহার উদ্দিন চেয়ারম্যান সমর্থিত গোলাম মাওলা মিস্টার ও আজিমুর রহমানের নেতৃত্বে ৭/৮ জন যুবলীগকর্মী সিএনজি অটোরিক্সাযোগে এসে অতর্কিতভাবে গুলি করে পালিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে ফেনী সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে আশংকাজনক অবস্থায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহত মানিক কুরুচিয়া গ্রামের মোঃ শাহজাহান সাজুর ছেলে ও ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি।
 
ফেনী জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী জানান, নিহত মোহাম্মদ মানিক বালিগাঁও ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি ছিলেন। তিনি আভ্যন্তরীন যুবলীগের কোন্দলের কখা অস্বীকার করেন। তবে স্থানীয় আধিপত্য ও কোন্দলকে কেন্দ্র করে তাকে দুর্বৃত্তরা গুলি করে হত্যা করেছে বলে দাবি করেন।
 
ফেনী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহবুব মোরশেদ প্রতিপক্ষের গুলিতে যুবলীগ নেতা মোহাম্মদ মানিকের মৃত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, তাঁর লাশ ময়না তদন্তের জন্য ফেনী সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। 

Related Post