নোয়াখালীর কক্সবাজার

জুলাই ১০, ২০১৬ ০১:০৭:অপরাহ্ণ

কামরুল হাসান:

ঈদ উপলক্ষে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার মুছাপুর ক্লোজার জমজমাট হয়ে উঠেছে। ঈদ ছাড়াও ক্লোজার এলাকায় প্রতিদিন হাজার ভ্রমন করতে আসে। এখানে আছে নদীর প্রাকৃতিক দৃশ্য,নৌকা ভ্রমন পর্যটকদের আকর্ষক করছে। স্থানীয়রা ক্লোজারকে ‘নোয়াখালীর কক্সবাজার’ বলে ডাকেন। মূলত কোম্পানীগঞ্জ এলাকায় বিনোদনের জন্য তেমন কোন স্থান না থাকায় আশপাশের মানুষ এখানে ভিড় করেন। ক্লোজারে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তাসহ আরো সুযোগ সুবিদা বাড়াতে পারলে এ অঞ্চলে গরীব মানুষদের ভাগ্যের চাকা ঘুরে যাবে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা। এজন্য মনোরম পরিবেশের স্থানটি পর্যটন এলকা ঘোষনা করার দাবী জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

কিভাবে যাবেন:
নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের বসুর হাট থেকে বাংলা বাজার, অতপর দক্ষিনে চৌধুরী বাজার পার ২ কিলোমিটার রাস্তা হয়ে চার রাস্তার মোড় দিয়ে পূর্ব দিকে জনতা বাজার এর পর দক্ষিণে ১.৫ কিলোমিটার রাস্তার অতিক্রম করে একটু পূর্বে গেলেই মুছাপুর ক্লোজার।
কোম্পানীগঞ্জের মুছাপুরের নদীর তীরে অবস্থিত গনপ্রজাতন্ত্রীক বাংলাদেশ সরকারের প্রায় ২৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হয়েছে এই মুছাপুর ক্লোজার। এখানে আছে নদীর প্রাকৃতিক দৃশ্য,নৌকা ভ্রমনের অসাধারণ আনন্দ-অভিজ্ঞতা, সকালের শান্ত মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশ, রাখালের গান, মাঝির গান, পাখির কলতান, জেলেদের মৎস উৎসব,গরু-মহিষ-ভেড়া সহ ভিবিন্ন প্রজাতির পশু পাখিদের দলের সৌন্দর্য বিকালের হিমেল হাওয়া,সহ নানান সব গ্রাম্য ঐতিহ্য আর প্রাকৃতিক দৃশ্য।

Related Post