হাতিয়াতে সংঘর্ষ : আহত ২০

জানুয়ারি ১৬, ২০১৭ ০৮:০১:পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার চরকিং ইউনিয়নে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্থানীয় দু’গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া এবং সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে ১০জন গুলিবিদ্ধ’সহ উভয় পক্ষের অন্তত ২০জন আহত হয়েছে। এসময় কয়েকটি বসত ঘরে ভাঙচুর করা হয়।

মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) দুপুর থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত ভৈরব বাজার এলাকার শুল্যকিয়া গ্রামের এ ঘটনা ঘটে। আহত গুলিবিদ্ধরা হচ্ছেন- আব্দুর রহিম (৪০), আবু তাহের (২৮), জসিম উদ্দিন (২৭), রাশেদ (৩৫), আবদুল করিম (৪২), আব্দুর রহিম কালু (৩০), কাউসার (২৮), জুয়েল (৩২), সাইফুল ইসলাম (৩৩), কাদের মোল্লা (৪৫), বাবর উদ্দিন (৪৩), ইউসুফ (৩৬)’সহ ১৪ জন। অপর আহতদের নাম পরিচয় জানা যায়নি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনী পরবর্তি সহিংসতার জের ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বর্তমান চেয়ারম্যান এবং নির্বাচনের তার প্রতিদ্বন্দ্বী চেয়ারম্যান (এমপি সমর্থিত) প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এসময় সংঘর্ষকারীরা কয়েকটি বাড়ীতে ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়। সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ২০জন আহত হয়েছে। পরে খবর পেয়ে হাতিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন জানান, দুপুুরে স্থানীয় ডাকাত আব্দুর রহিম, আবু, মুরাদ, রবিন্দ্র বাহিনী, আমিন উল্যাহ, আলা উদ্দিন, আবু তাহের, শাহারাজ ডাকাত, ফারুক ডাকাত’সহ ৩০/৩৫জনের একটি দল ৫টি বাড়ীতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও লুটপাট করে। এসময় স্থানীয়রা তাদের বাধা দিলে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে হামলাকারীদের ছুঁড়া এলাপাতাড়ি গুলিতে ১০জন গুলিবিদ্ধ হয়। আহতদের জেলা সদর’সহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম ফারুক জানান, গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের পর নির্বাচিত আলহাজ্ব মহি উদ্দিনের সমর্থকরা তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী (এমপি সমর্থিত) প্রার্থীর কয়েকজনকে এলাকা থেকে তাড়িয়ে দেয়। দীর্ঘদিন উপজেলা শহরে থাকার পর মঙ্গলবার ভোরে তারা এলাকায় যায়। দুপুরের দিকে তাদের এলাকায় আসার খবর ছড়িয়ে পড়লে পুণঃরায় চেয়ারম্যান ও এমপি সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। তবে এ বিষয়ে কেউ থানায় কোন অভিযোগ করেনি।

Related Post